উন্নয়ন যোগাযোগের বৈশিষ্ট্য এবং পূর্বশর্তসমূহ

উন্নয়ন যোগাযোগের বৈশিষ্ট্য এবং পূর্বশর্তসমূহ

উন্নয়ন যোগাযোগের বৈশিষ্ট্য সমূহ

উন্নয়ন যোগাযোগ শুধুমাত্র মানুষের দৃষ্টিভঙির ইতিবাচক পরির্ব্তনই করে না বরং তাদের মাঝে সচেতনতাও তৈরি করে। এক্ষেত্রে উন্নয়ন যোগাযোগের বৈশিষ্ট্যসমূহ নিম্নরূপ:-

১. উন্নয়ন যোগাযোগ উদ্দেশ্যমূলক।
২. উন্নয়ন যোগাযোগ শিক্ষামূলক প্রক্রিয়া।
৩.এটি পরিকল্পিত কাঠামোর সাথে যুক্ত যা পরির্ব্তন বিশ্বাসী।
৪. উন্নয়ন যোগাযোগ এমন একটি পরিবেশ তৈরি করে যেখানে জনগন স্বাধীনভাবে সিদ্ধান্ত নিতে পারে।

উন্নয়ন যোগাযোগ

Know More….উন্নয়ন যোগাযোগ কী । What Is Development Communication

উন্নয়ন যোগাযোগ এর পূর্বশর্ত সমূহ:

উন্নয়ন যোগাযোগের উদ্দেশ্যই হল জনগনের মাঝে বোধগম্যতা তৈরী করা।যেন বিষয়টা তারা খুব সহজেই মেনে নেয় এবং কোন প্রতিবন্ধকতা তৈরী না করে।যেসব প্রকল্প চালু করার উদ্দ্যোগ নেয়া হয় তা যেন তাদের মাঝে সাড়া ফেলে এবং তার প্রয়োজন অনুভব করে।এক্ষেত্রে আমরা উন্নয়ন যোগাযোগের যে পূর্ব গুলো পাই তা নিম্নরূপ:-

১.মানবিক ও স্থানিক অভিমুখী দৃষ্টিভঙ্গী:

উন্নয়ন যোগাযোগের এরিয়া এবং ঐ অজ্ঞ মানুষের দৃষ্টিভঙ্গীকে প্রাধান্য দিতে হবে।এক্ষেত্রে যা করতে হবে-

-মানুষের মানসিক অবস্থা বুঝতে হবে।
-মানুষের উন্নয়নের দ্বার উন্মুক্ত করে দিয়ে গ্রাম-শহর ধনী-গরীব,নারী- পুরুষ প্রভৃতির মাঝে * আর্থ-সামাজিক এবং যোগাযোগ দুরত্ব কমাতে হবে।

২.যোগাযোগ সম্পৃক্ততা বৃদ্ধি:-

কোন ধরনের যোগাযোগ করলে জনসাধারনের কাছে পৌছানো যাবে অথবা জনগনের চাহিদা মোতাবেক যোগাযোগ পদ্ধতি গ্রহন করতে হবে।যেমন-আন্তঃব্যক্তিক যোগাযোগও করা যেতে পারে,যদি আন্তঃব্যক্তিক যোগাযোগ অপেক্ষা গনযোগাযোগ শ্রেয় মনে হয় তবে গনযোগাযোগ পদ্ধতি গ্রহন করতে হবে।এক্ষেত্রে যে সমস্ত বিষয় খেয়াল রাখতে হবে তা হল:-

-যোগাযোগ মাধ্যম চিহ্নিত করা।
-যোগাযোগ নেটওয়ার্ক সচল রাখা।
-গ্রামীন নেতাদের কাজে লাগানো।
-উন্নয়ন যোগাযোগে আগ্রহী এমন লোককে খুজে বের করা।
-এলাকার প্রযুক্তিগত প্রাপ্যতা চিহ্নিত করা।
-দেশীয় সম্পদের ব্যবহার এবং মানুষের সাক্ষরতার হার চিহ্নিত করা।

৩.যোগাযোগে প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করা:

উন্নয়ন বার্তা সবার কাছে সমানভাবে যায় না।এক্ষেত্রে তিনটি factor কাজ করে-
a. technical

b. theoretical

c. potential reach of the media

মানুষকে যোগাযোগে সম্পৃক্ত করতে বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করা।যেন কোন ব্যক্তি যোগাযোগে অংশগ্রহনে বাধা-প্রাপ্ত না হয়।এজন্য যা যা করতে হবে-

Advertisement

-বার্তা দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় media আছে কীনা?
-বার্তা পৌছে দিতে এক বা একাধিক মাধ্যম ব্যবহার করা যাবে কিনা?
-যোগাযোগকারীর দক্ষতা ও সৃজনশীলতা আছে কীনা?

আবার কখনো গনমাধ্যম প্রচলিত থাকলেও তা জনগনের মাঝে পৌছেনা।যেমন-
-যাদের উন্নয়ন প্রয়োজন নেই তাদের গনমাধ্যম আছে।আর যেখানে উন্নয়ন প্রয়োজন নেই সেখানে গনমাধ্যম নেই।

-গনমাধ্যমের উপস্থিতি আছে কিন্তু বার্তা উন্নয়ন বান্ধব নয়।
-গনমাধ্যমের বার্তা পরিবেশগতভাবে উন্নয়ন প্রাসংগিক নয়।
-বার্তার উপযোগিতা আছে।তবে সমাজে অবকাঠামোগত বাধা আছে।

উল্লেখিত পরিস্থিতিতে উন্নয়ন বার্তা জনগনের কাছে পৌছায়না।

100% LikesVS
0% Dislikes

Write a Comment

Share It