সংবিধানের ৩৯ তম অনুচ্ছেদ । 39th paragraph of constitution


Fareeha Tasrin Reeha

বাংলাদেশের সংবিধানের ৩৯ তম অনুচ্ছেদ 39th paragraph of Bangladesh constitution

According to the Constitution of the People’s Republic of Bangladesh (Act no. of 1972, part 3, Fundamental Rights) Freedom of thought and conscience and of speech 

Article 39:

 (1) Freedom of thought and conscience is guaranteed. 

 (2) Subject to any reasonable restrictions imposed by law in the interest of the security of the state, friendly relations with foreign States, public order, decency or morality, or in relation to contempt of court, defamation or incitement to an offence- 

     (a) the right of every citizen to freedom of speech and expression and 

      (b)  freedom of the press, are guaranteed.

সংবিধানের ৩৯ তম অনুচ্ছেদ


গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধান (১৯৭২ সনের নং আইন) তৃতীয় ভাগ: মৌলিক অধিকার

অনুচ্ছেদ ৩৯: চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতা এবং বাক-স্বাধীনতা

৩৯ । (১)চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতার নিশ্চয়তা দান করা হইল।

Advertisement

       (২) রাষ্ট্রের নিরাপত্তা, বিদেশি রাষ্ট্রসমূহের শহীদ বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক, জনশৃঙ্খলা, শালীনতা ও নৈতিকতার স্বার্থে কিংবা আদালত অবমাননা,মানহানি বা অপরাধ সংঘটনে প্ররোচনা সম্পর্কে আইনের দ্বারা আরোপিত যুক্তিসঙ্গত বাধা-নিষেধ সাপেক্ষে

     (ক) প্রত্যেক নাগরিকের বাক ও ভাব প্রকাশের স্বাধীনতার অধিকারের, এবং

     (খ) সংবাদপত্রের স্বাধীনতার নিশ্চয়তা দান করা হইল।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধান স্বাধীন ও সার্বভৌম বাংলাদেশ রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ আইন। এটি একটি লিখিত দলিল।১৯৭২ দিবসের প্রথম বার্ষিকী হতে এটি কার্যকর হয়।মূল সংবিধান ইংরেজি ভাষায় রচিত হয় এবং একে বাংলায় অনুবাদ করা হয়। তাই এটি বাংলা ও ইংরেজি উভয় ভাষায় বিদ্যমান। তবে ইংরেজি ও বাংলার মধ্যে অর্থগত বিরোধ দৃশ্যমান হলে বাংলার অনুসরণীয় হবে। 

Advertisement

বাংলাদেশের সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৩৯ চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতা এবং বাক-স্বাধীনতা সম্পর্কিত সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অনুচ্ছেদ।

আরো জানুন……. মিডিয়া আইন সম্পর্কিত সকল আর্টিকেল পেতে এখানে ক্লিক করুন

বাকস্বাধীনতা এবং অনুভূতি প্রকাশিত হয় মনের গভীর চিন্তা ভাবনা থেকে। বাকশক্তি মানব সমাজের জন্য একটি ঈশ্বর প্রদত্ত উপহার। চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতা একটি স্বাধীন রাষ্ট্রে মৌলিক স্বাধীনতা হিসেবে বিবেচ্য।চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতা কে বলা হয় প্রথম স্বাধীনতা এবং সব ধরনের স্বাধীনতার ঊর্ধ্বে এর গুরুত্ব। বাংলাদেশের সংবিধানে চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতা কে প্রথম সংশোধনীতেই নিশ্চয়তা প্রদান করা হয়েছে।

রাষ্ট্র এবং সরকারের কর্মকাণ্ডের উন্নয়নের লক্ষ্যে বাকস্বাধীনতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে রাষ্ট্রের নিরাপত্তার স্বার্থে সংবিধানে বাকস্বাধীনতার এবং প্রকাশভঙ্গি ক্ষেত্রে কারণসমূহ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এক্ষেত্রে রাষ্ট্রের নিরাপত্তা বলতে বুঝায় খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং ভয়াবহ অবস্থা উদাহরণস্বরূপ বিপ্লব, রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে আসন্ন যুদ্ধ, বিদ্রোহ, জাতীয় নিরাপত্তার খাতিরে তৈরি কোন আইন অমান্য করা, বেআইনি সমাবেশ, দাঙ্গা।

কাজেই বলা যায়,বাকস্বাধীনতা শুধু যে গুরুত্বপূর্ণ তা নয় বরং এটা অন্যের অধিকার রক্ষার্থে এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বাকস্বাধীনতা তখনই সঠিকভাবে প্রকাশ করা সম্ভব যখন তা আইনের গন্ডির ভিতরে থেকে, নিজস্ব দায়িত্বে এবং অন্যের অধিকার এবং মর্যাদার প্রতি লক্ষ্য রেখে পরিচালনা করা যায়।

একটি রাষ্ট্রের উন্নয়নে চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতাকে কোনোভাবেই নগণ্য বলে বিবেচনা করা যাবে না।

The Universal Declaration of Human Rights was adopted by the United Nations in 1948 and in its preamble “it was proclaimed as a common standard of achievement for all peoples and all Nations.”

গণমাধ্যমের স্বাধীনতার উপর কেবলমাত্র তখনই বাধা দেওয়া উচিত যখন এর সাথে রাষ্ট্রীয় স্বার্থ ও নিরাপত্তা এবং সার্বজনীন মানবাধিকারের স্বার্থ জড়িত থাকে। কাজেই বলা যায়, সংবাদপত্র বা গনমাধ্যমের দায়িত্ব হচ্ছে এমনভাবে চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতা প্রকাশ করা যেন কোনোভাবেই রাষ্ট্রীয় স্বার্থ এবং নিরাপত্তা আর কোন ব্যক্তিগত স্বার্থ ও নিরাপত্তা ক্ষতিগ্রস্থ না হয়। অর্থাৎ কোনভাবেই যেন মানহানির কোন সম্ভাবনা দেখা না দেয় এভাবে চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতা কে গুরুত্ব দেওয়া।

The court reminds that “freedom of expression constitution constitutes one of the essential foundations of any democratic society and subject to paragraph 2 of article 10,it is applicable not only to information or ideas that are favourably received or regards as an offensive or as a matter of indifference, but also to those that, shock or disturb.”

সংবিধানের ৩৯ তম অনুচ্ছেদ


লেখক : সাবেক শিক্ষার্থী
আইন অনুষদ , চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

100% LikesVS
0% Dislikes

Write a Comment

Share It